মো: মুমিন মিয়া, বালাগঞ্জ:

কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই শান্তিপূর্ণ ভাবে বালাগঞ্জে উপজেলা পরিষদ নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। উপজেলার ৬ টি ইউনিয়নের ৩৪টি ভোট কেন্দ্রে ভোটাররা ভোট প্রদান করেন। নির্বাচনে চেয়ারম্যান নৌকার প্রতিকের প্রার্থী মোস্তাকুর রহমান, ভাইস চেয়ারম্যান পদে জেলা যুবলীগ নেতা সামস উদ্দিন ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে উপজেলা যুব মহিলা দলের নেত্রী সেবু আক্তার মনি বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।

নির্বাচন সুষ্ঠু এবং শান্তিপূর্ণ পরিবেশে সম্পন্ন করতে প্রশাসনের পক্ষ থেকে ব্যাপক প্রস্তুতি নেয়া হয়। বিজিবি, র‌্যাব ও পুলিশের সমন্বয়ে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যারা যৌথ ভাবে নির্বাচনী দায়িত্ব পালন করেন। এ উপজেলায় মোট ভোটার সংখ্যা ৮০হাজার ৬শ ৩৮জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৪০হাজার ২শ ৩৯শ ও নারী ভোটার ৪০হাজার ৩শ ৯৯জন।

মোট ৩৪টি কেন্দ্র ২শ ৮টি কক্ষে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে তিনটি পদের বিপরীতে ১২ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্ধিতা করেন।

এর মধ্যে চেয়ারম্যান পদে ৪, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৫ ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৩জন প্রতিদ্বন্ধিতা করেন। নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নৌকা প্রতিকের প্রার্থী মোস্তাকুর রহমান মফুর ১৮হাজার ৯শত ৯৮ ভোটের ব্যবধানে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার প্রাপ্ত ভোট ২৭হাজার ৫শত ৭৪

। নিকটতম স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান আবদাল মিয়া ঘোড়া প্রতিকে পেয়েছেন ৮ হাজার ৫শত ৭৬ ভোট। চেয়ারম্যান পদে অপর স্বতন্ত্র প্রার্থী মোহাম্মদ গোলাম রব্বানী আনারস প্রতিকে ২ হাজার ১শ ৭৪ ও জাতীয় পার্টির লাঙ্গল প্রতিকের প্রার্থী আব্দুল রহিম ৪শ ১৭ ভোট পেয়েছেন।

ভাইস চেয়ারম্যান পদে সামস উদ্দিন চশমা প্রতিকে ১১ হাজার ৮শ ৫৮ পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। নিকটতম প্রতিদ্বন্ধি হুমায়ুন রশিদ চৌধুরী টিউবওয়েল প্রতিকে পেয়েছেন ৯ হাজার ৩শ ৫৭ ভোট।

অন্যান্য প্রার্থীদের মধ্যে মোস্তাক উদ্দিন আহমদ তালা প্রতিকে ৭ হাজার ৪শ ৫৯, সুজিত চন্দ্র গুপ্ত বাচ্চু বাল্ব প্রতিকে ৭ হাজার ৯ ও শেখ নূরে আলম মাইকে প্রতিকে ১ হাজার ৯শ ২২ ভোট পান।

মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ফুটবল প্রতিকে সেবু আক্তার মনি ১৫ হাজার ৫শ ১৬ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। নিকটতম প্রতিদ্বন্ধি কুলসুমা বেগম পদ্মফুল প্রতিকে পেয়েছেন ১২ হাজার ৭শ ৭৬ ও সুক্তি রাণী দাস কলস প্রতিকে পেয়েছেন ৯ হাজার ৮ শ ৮৩ ভোট। এদিকে সকাল থেকে ভোট কেন্দ্রে ভোটারদের উপস্থিতি খুবই কম ছিল। বিশেষ করে একাধিক ভোট কেন্দ্রে নারী ভোটারদের উপস্থিতি তেমন একটা চোখে পড়েনি। বিকেল ৩টার দিকে আহমদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোট কেন্দ্রে গিয়ে দেখা যায় ২০ ভাগ ভোট প্রদান হয়েছে। এই কেন্দ্রে মোট ভোটার ৩ হাজার ৩৫। সাড়ে তিনটার দিকে জামালপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ৬৭ ভাগ ভোট প্রদান হয়। এই কেন্দ্রে মোট ভোটার ২হাজার ৭শ ১৫।

তবে এই কেন্দ্রে ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী মোস্তাক উদ্দিন আহমদের তালা প্রতিকে টেবিল কাস্ট করার অভিযোগ করেছেন প্রতিদ্বন্ধি অন্যান্য ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীরা। বেলা ২টা পর্যন্ত আজিজপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ৪০ ভাগ ভোট প্রদান হয়। এই কেন্দ্রের ভোট ভোটার ৩ হাজার ৯৩ জন।

 

 

সংবাদটি সম্পর্কে মন্তব্য করুনঃ

Facebook comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>