সঞ্জয় মালাকার:::মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক মীর নাহিদ আহসান কুলাউড়া উপজেলার মুরইছড়ায় সামাজিক বনায়ন নিয়ে সৃষ্ট হামলা-মামলার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, এসব ঘটনায় যারাই উস্কানি দেবেন তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। বন বিভাগকে তাদের জায়গায় বনায়নে সহযোগিতা করতে হবে,
কোন ধরনের বাধা দেয়া যাবে না। রাষ্ট্র শুধু ক্ষুদ্র-নৃ-গোষ্ঠীকে নয়, সকল জনগোষ্ঠীকে অর্থনৈতিক ও সামাজিক সর্বোচ্চ নিরাপত্তা দেবে। সবাইকে সম্প্রীতি রক্ষা করে চলতে হবে। রাষ্ট্রকে চ্যালেঞ্জ করার কারও অবকাশ নেই।

তিনি আরো বলেন, বিরোধপূর্ণ ১০৫ নং দাগের ২৮৬ একরের মধ্যে ১৪৫ একর নিয়ে মামলা চলমান রয়েছে। উক্ত দাগের অবশিষ্ট অংশে বন বিভাগের সামাজিক বনায়নের কাজ চলবে। কেউ বাধা দিলে এর পরিনাম ভয়াবহ হবে।

কুলাউড়া উপজেলার কর্মধা ইউনিয়নের মুরইছড়া বনবিট এলাকায় সামাজিক বনায়ন নিয়ে সাম্প্রতিককালে খাসিয়া সম্প্রদায় ও উপকারভোগীদের মধ্যে সৃষ্ট ঘটনার আইনশৃঙ্খলা রক্ষার্থে মঙ্গলবার (৭ সেপ্টেম্বর) অনুষ্ঠিত এক সম্প্রীতি সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

কুলাউড়া উপজেলা প্রশাসনের আয়োজিত এই সমাবেশে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে মৌলভীবাজার জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ জাকারিয়া বলেন, বন বিভাগ রাষ্ট্রের। রাষ্ট্রীয় সামাজিক বনায়ন কর্মসূচি বাস্তবায়ন করে আমাদের প্রকৃতিকে রক্ষা করতে হবে। আমাদেরকে রাষ্ট্রের প্রচলিত আইন মেনে চলতে হবে। ভবিষ্যতে যারা আইন অমান্য করবে তাদের বিরুদ্ধে আরও কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

কুলাউড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এটিএম ফরহাদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও কুলাউড়া থানার ওসি (তদন্ত) আমিনুল ইসলাম এর পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে বিশেষ অতিথি ছিলেন কুলাউড়া উপজেলা চেয়ারম্যান একেএম সফি আহমদ সলমান, কুলাউড়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাদেক কাওছার দস্তগীর, কুলাউড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম রেনু, মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট অর্ণব মালাকার, কুলাউড়া থানার ওসি বিনয় ভূষণ রায়, মৌলভীবাজার জেলার সহকারী বন সংরক্ষক জি এম আবু বকর সিদ্দিক, কুলাউড়া প্রেসক্লাব সভাপতি এম শাকিল রশীদ চৌধুরী, কর্মধা ইউপি চেয়ারম্যান এম এ রহমান আতিক, পৃথিমপাশা ইউপি চেয়ারম্যান নবাব আলী বাকর খাঁন, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি মছদ্দর আলী, লক্ষীপুর মিশনের ফাদার জোসেফ।
বক্তব্য রাখেন বন বিভাগের কুলাউড়া রেঞ্জ কর্মকর্তা মো. রিয়াজ উদ্দিন, সামজিক বনায়নের উপকারভোগী হারিছ আলী, খাসি সম্প্রদায়ের নেত্রী বাবলি তালাং, হেনরি তালাং (টু), লবিং সুরেং প্রমুখ।

সংবাদটি সম্পর্কে মন্তব্য করুনঃ

Facebook comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>