জৈন্তাপুর প্রতিনিধি (সিলেট):: ২০০৭ইং সনে জৈন্তিয়া ইসলামিক সোসাইটি কর্তৃক প্রতিষ্টিত ও পরিচালিত জৈন্তা জামেয়া ইসলামিয়া মহিলা মাদরাসা নিয়ে “বহিরাগতদের দখলের চেষ্টা” জাতীয় বানোয়াট, অসত্য ও বিভ্রান্তিকর বক্তব্যের তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন জৈন্তা ইসলামিক সোসাইটির চেয়ারম্যান ও জৈন্তা জামেয়া ইসলামিয়া মহিলা মাদরাসার প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি এডভোকেট আব্দুল আহাদ,প্রতিষ্ঠাতা প্রিন্সিপাল ও বর্তমান মাদরাসা কমিটির সভাপতি মাওলানা আব্দুল খালিক,সোসাইটির সেক্রেটারি মাওলানা আব্দুর রহমান প্রমুখ।

নেতৃবৃন্দ তাদের বক্তব্যে বলেন,উক্ত মহিলা মাদরাসা একান্ত ভাবেই জৈন্তা ইসলামিক সোসাইটি কর্তৃক ২০০৭ সনে প্রতিষ্ঠিত হয়,প্রথম তিন বছর মাদরাসাটি জৈন্তাপুর বড় পুকুরপাড়ে ভাড়া ঘরে পরিচালনা করে।অতঃপর সোসাইটির সদস্যরা নিজস্ব অর্থে ২০০৮ সনে মাদরাসার নিজস্ব নামে রেজিঃ কাবালামূলে তিনবিঘা ভূমি ক্রয়করে ২০০৯ সনে নিজস্ব অর্থে মাদরাসার বর্তমান ঘর নির্মান করে এর শিক্ষক বেতন সহ যাবতীয় ব্যয়ভার ডেস্ক,ব্রেন্চ,চেয়ার শিক্ষা সামগ্রী,শিক্ষক বেতন ভাতাদি বহন করে পরিচালনা করে আসা অবস্হায় করোনার বন্ধের সুযোগে স্হানীয় কিছু অসাধু ব্যক্তি ও সোসাইটির সাবেক একজন সদস্যের সাথে আতাত করে,অর্থ আত্নসাৎ ও দূর্নীতির দায়ে বহিঃস্কৃত সাবেক সুপার ও একটি চক্রের যোগসাজশে কিছু মিথ্যা ভূয়া বানোয়াট সাজানো কল্পকাহিনী প্রচার করে মাদরাসার মূল্যবান তিনবিঘা ভূমি সহ প্রাইভেট এই প্রতিষ্ঠান টি ঘৃণ্য পন্হায় জবরদখলের চেষ্টা শুরু করে।এক পর্যায়ে মাদরাসা খোলার পর নেতৃবৃন্দ ও শিক্ষক মন্ডলী পাঠদান করাতে গেলে এই চক্রটি রাজিয়া নামের একজন জুনিয়র শিক্ষিকা যাকে কমিটি গত ২০-৯-২১ইং দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেয় – তার সাথে আতাত করে মাদরাসারায় গোপনে বহিরাগত ভাড়াটিয়া বাহিনী দিয়ে হুমকি ধামকি দিতে থাকে এবং গত শনিবার ২৫ সেপ্টেম্বর মাদরাসার মেয়েদের নামাজের ভাংগা গৃহটি মেরামত করার জন্য মাওলানা আব্দুল খালিক মিস্ত্রি নিয়ে গেলে উক্ত রাজিয়া সহ বহিরাগতরা মাদরাসার প্রতিষ্টাতা প্রিন্সিপাল সহ শিক্ষক সিরাজ উদ্দিন ও মিস্ত্রিদের উপর হামলা করে।পরে স্হানীয় মুরব্বী ও থানা প্রশাসনের তড়িৎ হস্তক্ষেপে বিষয়টি নিয়ন্ত্রণে আসে।বহিরাগতরা মিস্ত্রীদের কাজের যন্ত্রপাতি,হাতিয়ার ও টাকা পয়সা, মোবাইল ইত্যাদি লুটপাট করে। এ ব্যাপারে বিবাদীদের বিরুদ্বে সুনির্দিষ্ট অভেযোগে জৈন্তাপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।বিষয়টি তদন্তধীন রয়েছে।

এ বিষয়ে জৈন্তাপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ গোলাম দস্তগীর জানান,বিষয়টি সমাধানের লক্ষে উপজেলা চেয়ারম্যান ও ইউএনও সাহেব উদ্যোগ নিয়েছেন।

তদন্ত অফিসার এসআই শাহেদ আহমদ জানান,ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়েছি,সটিক তদন্ত চলছে।এ বিষয়ে গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ বিষয়টি সমাধানের লক্ষে উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন।আপাদত দুই পক্ষকে নিষেধ দেওয়া হয়েছে কেউ যাতে প্রতিস্টানে না যান।


ছবিটি যুক্তরাষ্ট্রের আওয়ামীলীগ নেতা খসরুজ্জামান খসরু ও যুবলীগ নেতা জাকিরুল আলম জাকির এর মাদরাসায় সম্বর্ধনা অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন-সোসাইটির চেয়ারম্যান ও মাদ্রাসার প্রতিস্টাতা সভাপতি এডভোকেট মো.আব্দুল আহাদ।

সংবাদটি সম্পর্কে মন্তব্য করুনঃ

Facebook comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>