মো.ছায়াদ আলী :: দ্বিতীয় ধাপে সিলেটে দিনভর উৎসবের আমেজে ১৫ টি ইউনিয়নে ভোটগ্রহণ শেষে হয়েছে। ১৫ টি ইউনিয়নের ১৩ টিতেই আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী থাকায় ভোটের দিন ব্যাপক সহিংসতার শঙ্কা থাকলেও বড় ধরণের কোন সংঘাতের ঘটনা ঘটেনি।

দিনভর ভোটের পর গণনা শেষে বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে জানা যায়, সিলেটের ১৫টি ইউনিয়নের মধ্যে ৬টিতে আওয়ামী লীগ, দু’টিতে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী, ৪টিতে স্বতন্ত্রের ব্যানারে বিএনপি, ১টিতে জামায়াত ও ১টিতে খেলাফত মজলিসের প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন।

এর মাঝে সিলেট সদর উপজেলার চারটি ইউনিয়নে মধ্যে মোগলগাঁওয়ে আওয়ামী লীগের প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান হিরণ মিয়া, কান্দিগাঁওয়ে জামায়াত নেতা আবদুল মনাফ, জালালাবাদে আওয়ামী লীগের ওবায়দুল্লাহ ইসহাক ও হাটখোলায় খেলাফত মজলিসের মাওলানা রফিকুজ্জামান বিজয়ী হয়েছেন।

কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার ৫টি ইউনিয়নের মধ্যে ইসলামপূর পূর্ব ইউনিয়নে স্বতন্ত্রের ব্যানারে বিএনপি নেতা আলমগীর হোসেন আলম, তেলিখালে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী আবদুল ওয়াদুদ আলফু, ইছাকলসে বিএনপি সমর্থক সাজ্জাদুর রহমান, উত্তর রণিখাইয়ে আওয়ামী লীগের ফয়জুর রহমান ও দক্ষিণ রণিখাইয়ে আওয়ামী লীগের ইকবাল হোসেন এমাদ বিজয়ী হয়েছেন।

বালাগঞ্জ উপজেলার সদর ইউনিয়নে স্বতন্ত্রের ব্যানারে বিএনপি নেতা মো. আব্দুল মুনিম, পূর্ব গৌরীপুরে বিএনপি নেতা মুজিবুর রহমান মুজিব, পশ্চিম গৌরীপুরে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী আবদুর রহমান মাখন, বোয়ালজোড়ে আওয়ামী লীগের আনহার মিয়া, দেওয়ানবাজারে বিএনপির নাজমুল আলম ও পূর্ব পৈলনপুরে আওয়ামী লীগের শিহাব উদ্দিন বিজয়ী হয়েছেন।

দ্বিতীয় ধাপে ১৫ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী ছিলেন ৬৮ জন। সদস্য ও নারী সদস্য মিলিয়ে সর্বমোট প্রার্থীর সংখ্যা ছিলো ৭৪৫ জন। আর মোট ভোটার ২ লাখ ৪৭ হাজার ২৫৪ জন। মোট ১৪৩ টি কেন্দ্রে হয় ভোটগ্রহণ।

সংবাদটি সম্পর্কে মন্তব্য করুনঃ

Facebook comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>